পোল্যান্ড দেশটি সম্পর্কে আমরা কি জানি?

পোল্যান্ড দেশটি সম্পর্কে আমরা কি জানি? জানলেও বা কতটুকু? আজ আমরা জানাবো পোল্যান্ড’ দেশটি কেমন সে সম্পর্কে এবং কিছু অবাক করা তথ্য।

ইউরোপ মহাদেশের মধ্যস্থলের একটি রাষ্ট্র ও ঐতিহাসিক অঞ্চল পোল্যান্ড’। এটি সরকারিভাবে পোল্যান্ড প্রজাতন্ত্র নামে পরিচিত। এর রাজধানীর নাম ওয়ারর্শ। দেশটির পূর্বে ইউক্রেন ও বেলারুস, পশ্চিমে জার্মানি, উত্তরে বাল্টিক সাগর, লিথুয়ানিয়া ও রাশিয়া এবং দক্ষিণে চেক প্রজাতন্ত্র ও স্লোভাকিয়া অবস্থিত। এছাড়া বাল্টিক সাগরে পোল্যান্ডের সাথে ডেনমার্কের জলসীমান্ত রয়েছে।

চলুন এক নজরে দেখে আসি কিছু তথ্য ….পোল্যান্ডের আয়তন ৩,১২,৬৭৯ বর্গ কিলোমিটার। পোল্যান্ডের মোট জনসংখ্যা ৩ কোটি ৮৭ লাখের অধিক। পোল্যান্ডের সরকারি ভাষা ‘পোলীয়’। পোল্যান্ডের প্রায় ৯৮ শতাংশ লোক পোলীয় ভাষাতে কথা বলে। তাছাড়া অন্যান্য ভাষার মধ্যে প্রচলিত রয়েছে বেলারুশ, জার্মান, ইউক্রেনীয় এবং রোমানি ভাষা। তবে আন্তর্জাতিক কর্মকাণ্ডে দেশটি ইংরেজি ও রুশ ভাষা ব্যবহার করে।
স্থিতিশীল গণতন্ত্রের দেশ পোল্যান্ড। এই পোল্যান্ড নাম শুনতেই বহু বছরের সংস্কৃতি, ঐতিহ্য, সমুদ্রের নীল জলরাশি আর সবুজের ছায়া মিলেমিশে একাকার হয়ে যাওয়া এক অপরূপ সৌন্দর্য মণ্ডিত দেশের কথা মনে আসে। এর বাইরেও দেশটির দীর্ঘ ইতিহাস রয়েছে। পোল্যান্ডের সংস্কৃতি ১ হাজার বছরেরও বেশি পুরানো এবং জটিল। ইউরোপীয় সংস্কৃতির সঙ্গে মিলেমিশে এটি এক অনন্য চরিত্রটি গড়ে তুলেছে। তবে বর্তমানে দেশটিতে সাংস্কৃতিক ধারা রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক কার্যকলাপের ওপর অগ্রাধিকার লাভ করেছে। তবে প্রাচীন কাল থেকেই পোলিশ শিল্পের বহুমুখীতা প্রকৃতিতে বিভিন্ন অবদান রেখেছে।
পোলান্ডের কোনো কোনো অঞ্চল জনবিরল ও গহীন অরণ্যে আবৃত। ওই সব অঞ্চলে কৃষি ও শিল্প সম্পদের পরিমাণ কম। এক জরিপ অনুযায়ী দেখা গেছে, পোল্যান্ডের ৮৭ শতাংশ মানুষ খ্রিষ্ট্রান ধর্ম পালন করেন। এছাড়া পোলিশ অর্থোডক্সসহ অন্যান্য কিছু গোষ্ঠীর মানুষ অন্য ধর্ম পালন করে।
ন্যাশনাল জিওগ্রাফির চোখে পোল্যান্ড বিশ্বের ২৩ টি সুন্দরতম শহরের মধ্যে জায়গা করে নিয়েছে। দেশটির ভিস্তুলা নদীর ধারে অবস্থিত জ্যোতির্বিজ্ঞানী কপারনিকাসের জন্মস্থান হিসেবে পরিচিত তোরান শহর। শহরটিতে এখনও মধ্যযুগের বেশ কয়েকটি পুরনো স্থাপনা রয়েছে। শহরের টাউন হলটি ত্রয়োদশ শতকে নির্মিত। ঐ সময়ের অনেক পুরাতন গির্জা, ক্যাথেড্রাল পর্যটকদের দৃষ্টিতে আকর্ষণীয় স্থান।

পজনান পোল্যান্ডের পুরনো রাজধানী। শহরটির অন্যতম স্থান ওল্ড টাউন স্কোয়ার। এখানকার বিভিন্ন স্থাপনাতে প্রাচীনকালের গোথিক স্থাপত্য দেখা যায়, যা পর্যটকদের আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু। টাউন স্কয়ারের বিভিন্ন জায়গায় দেখা যায় ছাগলের নানা স্থাপত্য। এই কারণে পজনান শহরকে বলা হয়ে থাকে, ‘দ্য সিটি অব হেড বাটিং গোটস’।

পোল্যান্ডের সবচেয়ে জনপ্রিয় খেলা ভলিবল এবং ফুটবল। এছাড়াও পোল্যান্ডের মানুষ বাস্কেটবল, হ্যান্ডবল, বক্সিং, স্কাই জাম্পিং, আইস হকিং, টেনিস, সুইমিং এবং বাইক রাইডিং করতেও পছন্দ করে। পোল্যান্ডের জনগণের জন্য ফ্যাশান ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ এবং এটি দেশটির জাতীয় পরিচয় বহন করে। দেশটির মানুষের খাদ্যাভ্যাস ইউরোপ, অষ্ট্রেলিয়া, জার্মানি, ইউক্রেন, রাশিয়া, ফ্রান্স ইত্যাদি অনেক দেশের সাথে মিলে যায়।